হলি আটিসানের ঘটনায় ২১ জনকে আসামী করে চার্জশিট

0
331
২০১৬ সালে ১লা জুলাই রাতে রাজধানীর গুলশানের অভিজাত এলাকার হলি আর্টিসান রেস্তরায় জঙ্গিরা হামলা চালায়। তারা অস্ত্রের মুখে দেশি বিদেশী নাগরিকদের জিম্মি করে। দীর্ঘ দুই বছর তদন্ত শেষে রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিসানের হামলার ঘটনায় মোট ২১ জনকে অভিযুক্ত করে মামলার চার্জশিট প্রদান করা হয়েছে। যাদের মধ্যে ৫ জন মূল আসামী সেই দিনের ঘটনায় ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছেন,  পুলিশের জঙ্গী অভিযানে পরবর্তী সময়ে বাকি আরোও ৮ জন নিহত হয়। এখন জীবিত ৮জন আসামিদের মধ্যে ৬ জন পুলিশের হাতে গ্রেপতার হয়েছেন বাকী ২ জন পলাতক। এই মামলায় পুলিশ ৭৫টি আলামত উদ্ধার করেছেে যা ইতিমধ্যো আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া এই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক করিমের সম্পৃক্ততা পায়নি পুলিশ। যার ফলে তাকে এই মামলা থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
হলি আটিসানের ঘটনা
হলি আটিসানের ঘটনা
হলি আর্টিসানের সেনাবাহিনীর “অপারেশন থান্ডারবোল্টে” নিহত হয় ৫ জন এরা হলেন – মীর সামেহ মোবাশ্বের, রোহান ইবনে ইমতিয়াজ, শফিকুল ইসলাম ওরফে উজ্জল ও খায়রুল ইসলাম ওরফে পায়েল। পুলিশের বিভিন্ন জঙ্গি অভিযানে নিহত ৮ জন হলেন- তামীম আহমেদ চৌধুরী, নুরুল ইসলাম মারজান, তানভীর কাদেরী, মেজর জাহিদুল ইসলাম ওরফে মুরাদ, রায়হান কবির তারেক, সারোয়ান জাহান মানিক, বাশারুজ্জামান ওরফে চকলেট ও মিজানুর রহমান ওরফে ছোট মিজান । পুলিশের হাতে গ্রেপতার হয়েছেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ, সোহেল মাহফুজ, রাকিবুল হাসান রিগান, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান এবং হাদিসুর রহমান সাগর। এছাড়াও পলাতক ২ আসামি হলেন – শহীদুল ইসলাম খালেদ ও মামুনুর রশিদ রিপন। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রে গ্রেফতারি পরোয়ানা চাওয়া হয়েছে।
গুলশানের অভিজাত এলাকায় হলি আর্টিসানের মত রেষ্টুরেন্টকে জঙ্গিরা বেছে নেওয়া কারণ হিসেবে মনিরুল ইসলাম বলেন, জঙ্গিরা বিভিন্ন জায়গায় রেকি করেছিল। ৬ মাস আগে থেকে তাদের এই হামলার পরিকল্পনা ছিল। হলি আর্টিসানে প্রচুর বিদেশি নাগরিক খাওয়া দাওয়া করতে আসেন । এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল না বললেই চলে। আর এই রেষ্টুরেন্ট থেকে পালিয়ে যাওয়া সহজ ছিল। এ ছাড়া ওই দিন ছিল শুক্রবার ২৭ শে রমজান বেশি সওয়াবে পেতে তারা ওই দিন হামলা চালায়। এ হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত মোট ২১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। যাদের মধ্যে ১৪৯ জন ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন। এর বাইরে বিভিন্ন সংস্থার আইশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন অফিসার, ফরেনসিক টেষ্ট যারা করেছেন তাদের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। রাজধানীর গুলশানের অভিজাত এলাকার হলি আর্টিসান রেস্তরায় জঙ্গিরা হামলায় ওই রাতে অভিযান চালাতে গিয়ে পুলিশের দুই কর্মকর্তা নিহত হন। পরদিন সকালে সেনাবাহীনির তত্তাবধানে অভিযানে ৫ জন জঙ্গিসহ ৬জন নিহত হয়। পরে পুলিশ ১৮ জন বিদেশিসহ ২০ জনের মরদেহ উদ্ধার করে।
আমাদের সাথে যুক্ত হতে চাইলৈ : ফেসবুক পেইজ | | ফেসবুক গ্রুপ
উপরোক্ত তথ্য সম্পর্কিত কোন মতামত জানাতে চাইলে কমেন্ট করুন এবং শেয়ার করে অন্যকে জানার সুযোগ করে দিন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন