সিসিটিভি ক্যামেরা ক্রয়ের পূর্বে জেনে নিন প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য

0
378

বর্তমান সমাজব্যবস্থা যতই আধুনিকায়ন হচ্ছে ততই বাড়ছে আমাদের নিরাপত্তার জন্য তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার। আমরা নিরাপত্তার স্বার্থে বিভিন্ন ধরণের জিনিস ব্যবহার করি। আধুনিক যন্ত্র-পাতি ব্যবহারের ফলে আমাদের নিরাপত্তার বিধান করা অনেকটা সহজসাধ্য হয়েছে। বর্তমানে বাসা-বাড়ি ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তার স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে সিসিটিভি ক্যামেরা । যার মাধ্যমে আপনি আপনার বাসা-বাড়ি ও প্রতিষ্ঠানের প্রায় শতভাগ নিরাপত্তা বলয় তৈরি করতে পারবেন এছাড়াও জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে বর্তমানে বিভিন্ন জায়গায় সরকারী ও বেসকারীভাবে সিসিটিভি ক্যামেরা ব্যবহার ইতিমধ্যেই লক্ষ্য করা যায়। যা পূর্বে কল্পনা করাও সম্ভব ছিল না।

সিসিটিভি ক্যামেরা
সিসিটিভি ক্যামেরা সম্পর্কে কিছু তথ্

সিসিটিভি ক্যামেরা কি ?

সিসিটিভি ক্যামেরা হচ্ছে একটি বিশেষ ধরনের ক্যামেরা যার মাধ্যমে নিরাপত্তারমূলক কর্মকান্ড সুচারুভাবে সম্পন্ন করা যায় যা কিনা একজন বা তোতোধিক মানুষের পক্ষেও সম্ভব নয়। সিসিটিভি ক্যামেরা একটি বিশেষ বৈশিষ্ঠ্য হচ্ছে এই ক্যামেরা সারা দিন-রাত ২৪ ঘন্টা সচল থাকে। এবং সার্বক্ষণিক ফুটেজ তৈরি করে ও সংরক্ষণ করে ডাটা হিসেবে রেখে দেয়। যা যে কোন মূর্হতে দেখা যায়। আধুনিক মানের সিসিটিভি ক্যমেরাগুলোর মাধ্যমে আপনি দেশের যে কোন প্রান্ত হতে নির্দিষ্ট জায়গার ফুটেজ সরাসরি আপনার স্মার্টফোনে দেখতে পারবেন।

সিসিটিভি ক্যামেরা ক্রয়
সিসিটিভি ক্যামেরা ক্রয়ের পূর্বে করণীয়

সিসিটিভি ক্রয়ের পূর্বে জেনে নিন

ক্যামেরা সাথে সংযুক্ত মেমোরি আধুনিক বা উন্নত মানের ক্যামেরা গুলোর সাথে বর্তমান ইন্টারনাল মেমোরি কার্ড সংযুক্ত থাকে যা পূর্বে ছিল না। সংযুক্ত মেমোরি প্রাইজ ও কোয়ালিটি ভেদে এর সাইজ হতে পারে ৩২ হতে ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত। এই ক্যামেরাগুলোতে ডাটা সংরক্ষণের জন্য এক্সটারনাল মেমোরির প্রয়োজন হয় না। তবে কিছু সল্প মূল্যের সিসিটিভি ক্যামেরাগুলোর সাথে আপনি ইন্টারনাল মেমোরি কার্ড সুবিধা পাবেন না। এগুলোতে আপনাকে নিজস্ব মেমোরি কার্ড সংযুক্ত করতে হবে।
প্যান / টিল্ট ক্যামেরা : প্যান / টিল্ট হচ্চে আধুনিক ক্যামেরার নতুন একটি সংযোজিত সুবিধা । যার মাধ্যমে একটি ক্যামেরা দ্বারা আপনি নির্দিষ্ট জায়গার চারপাশের চিত্র দেখতে পারবেন।  একটি সিসিটিভি ক্যামেরা সর্বাধিক যত ডিগ্রি অনুভূমিকভাবে ঘোরে তাকে প্যান এবং উল্লম্বভাবে ঘোরে তাকে টিল্ট বলা হয়। সেরা সিসি ক্যামেরার কিছু, উদাহরণ, Sricam SP005 এসপি সিরিজ আপ 355 ডিগ্রী পর্যন্ত প্যান এবং 90 ডিগ্রী পর্যন্ত টিল্ট। সিসিটিভি ক্যামেরা তাদের অ্যাপ্লিকেশনগুলি দ্বারা রিমোট এরিয়া থেকেই ঘূর্ণায়মান হতে পারে।
সিসিটিভি ক্যামেরার ভিডিও রেজুলেশন : উন্নত সিসিটিভি ক্যামেরাগুলোর রেজুলেশন খুবই ভালো মানের হয় ৭২০ পি (১এমপি) এবং ১০৮০পি রেজুলেশন ভিডিও তৈরি করতে সক্ষম। ভালো মানের ক্যামেরাগুলো বিশেষ সুবিধা হচ্ছে দিনের বেলায় স্বচ্ছ অবিকল চিত্র প্রদর্শন ও ধারণ করতে সক্ষম যাকে বলা হাই-ডেভিনিশন বা এইচ-ডি। ক্যামেরা গুলোর মাধ্যমে আপনি ব্যান্ড ভেদে বিভিন্ন ধরণের টুডি ও থ্রি-ডি কোয়ালিটি পেতে পারেন। এবং রাত্রে অথবা অন্ধাকারে নাইট মোশন সুবিধা পাবেন। নাইট মোশন হচ্ছে অন্ধকারেও সুসপষ্ট ভিডিও হবে।
ক্যামেরায় অডিও সেন্সর : সাম্প্রতিক সময়ে সিসিটিভি ক্যামেরায় মোশন সেন্সর সুবিধা সংযোজন করা হয়েছে। আপনি যদি সিসিটিভি ক্যামেরা মাধ্যমে স্মার্ট নিরাপত্তা পেতে চান তাহলে আপনাকে খুবই উন্নত মানের সিসিটিভি ক্যামেরা ক্রয় করতে হবে। কেননা পূর্বের ক্যামেরাগুলোতে এই সুবিধা ছিল না। মোশন সেন্সর এর মাধ্যমে আপনি ভিডিও ফুটেজ ও সেই সাথে অডিও শুনতে পারবেন যা কিনা আপনার নিরাপত্তার শতভাগ চাহিদা পূরণ করবে।
সিসিটিভি ক্যামেরা ইন্সটল ও সেটাপ : সাধারণত, ওয়্যারলেস সিসিটিভি ক্যামেরা ইনস্টল এবং সেটআপের জন্য সবচেয়ে সহজ হয় কারণ এতে কোনও সংযোগ নেই। সিসিটিভি ক্যামেরা ইনস্টলেশনের সুবিধাটি মূলত পজিশনিং এবং মাউন্ট উপর নির্ভর করে। চৌম্বক ঘাঁটিগুলি বা স্টিকি প্যাডগুলির সাথে ক্যামেরাগুলি মাউন্ট করা সহজ, কিন্তু দীর্ঘমেয়াদী জন্য, দেওয়ালে ক্যামেরাটি স্ক্রু করা একটি নির্ভরযোগ্য উপায়।যদি সিসিটিভি ক্যামেরার একটি ভাল প্যান / টিল থাকে, তবে এটি সঠিক পজিশনিংয়ের প্রয়োজন হতে পারে। আপনি শুধু একটি উঁচু টেবিল বা অয়ারড্রপ উপর তাদের স্থাপন করতে পারেন।
জলরোধী সিসিটিভি ক্যামেরা : সিসিটিভি ব্যবহারের ওপর নির্ভর করে আপনি জলরোধী সিসিটিভি ক্যামের ক্রয় করতে পারেন। যদি আপনি বাসা-বাড়ি / প্রতিষ্ঠানের ভিতরের নিরাপত্তার জন্য ব্যবহার করেন তাহলে সাধারণ মানের সিসিটিভি ক্রয় করতে পারেন। কিন্তু যদি আপনি বাহিরের বা খোলা স্থানের নিরাপত্তার জন্য ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই জলরোধী ক্যামেরাগুলো ক্রয় করতে হবে।
ক্যামেরাতে ইনফ্রারেড এলইডি : সিসিটিভি ক্যামেরাগুলো ভালভাবে লক্ষ করলে দেখবেন ক্যামেরার চারপাশে সংযুক্ত কিছু ছোট ছোট বাল্ব আছে এটিই মুলত ইনফ্রারেড এলইডি। এই বাল্বের সংখ্যা যত বেশি হবে অন্ধকারে সিসিটিভি ক্যামেরা ততই ভালো রের্কড হবে।
ক্যামেরার ফুটেজ-রেন্স :  সিসিটিভি ক্যামেরার সর্বাধিক পরিসীমা চিত্র এবং আকারের ফোকাল দৈর্ঘ্যের উপর নির্ভরশীল। পরিসীমা যত বেশি হবে, দূরবর্তী দূরত্ব থেকে বস্তু তত পরিষ্কার দেখা যাবে। বাইরের সিসিটিভি ক্যামেরার জন্য উচ্চ পরিসীমা অপরিহার্য। একটি সিসিটিভি ক্যামেরার কমপক্ষে ২০ থেকে ২৫ মিটার রেঞ্জ হতে পারে।
সিসিটিভি ক্যামেরার সাথে সংযুক্ত ডি.ভি.আর ডিভাইস : কিছু  সিসিটিভি ক্যামেরার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান একটি অংশ হিসেবে সিসিটিভি ক্যামেরা তৈরি করে বিক্রি করে। তারা শুধুমাত্র তাদের প্যারেন্ট DVR এর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তাই যদি আপনাকে একটি DVR এর জন্য একটি সিসিটিভি ক্যামেরা কিনতে হয়, নিশ্চিত হয়ে নিবেন এটি DVR এর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা।
সিসিটিভি ক্যামেরার টপ ব্যন্ডসমূহ : বর্তমানে প্রতিটি প্রযুক্তি ক্ষেত্রে প্রতিদিনই কিছু ব্যান্ড তৈরি হচ্ছে। যা কিনা সর্বোচ্চ মান  ও গুনাগুণ নিয়ে হাজির হচ্ছে বাজারে আর টেক্কা দিচ্ছে বড় বড় সব ব্যান্ডকে তাই সঠিক করে বলার কোন উপায় নেই । তবে বাংলাদেশে বহুল বিক্রিত কিছু সিসিটিভি ক্যামরেরা ব্যান্ড উল্লেখ করা হল যা বর্তমান সময়ে ভালো সার্ভিস দিচ্ছে । সিসিটিভি ব্যান্ডগুলো : Cp Plus, Hikvision,Dahua,Zebronics,TVT, ESSL,Panasonic,Samsung
সিসিটিভি ক্যামেরার ওয়ারেন্টি ও মূল্য : সিসিটিভি ক্যামেরাগুলো এখন ব্যান্ডভেদে বিভিন্ন মেয়াদী ওয়ারেন্টি সার্ভিস দিয়ে থাকে। তবে ভাল মানের সিসিটিভি ক্যামেরাগুলো সর্বনিম্ন ৬ মাস থেকে ৩ বছর পর্যন্ত বিক্রয়ত্তোর সেবা প্রদান করার আস্থা দেয়। অন্যদিকে সিসিটিভি ক্যামেরা গুলোর মূল্য সঠীক করে বলার কোন উপায় নেই । কেননা বর্তমান বাজারে হরেক রকম ব্যান্ডের হাজার রকমের সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে যার দাম সর্বনিম্ন ১ হাজার টাকা হতে শুরু করে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। তবে ভালো মানের ক্যামেরা স্বল্পমুল্যে ক্রয় করেত Allstorebd ওয়েবসাইট অথবা Facebook Group ভিজিট করতে পারবেন ।
আমাদের সাথে যুক্ত হতে চাইলৈ : ফেসবুক পেইজ | | ফেসবুক গ্রুপ
উপরোক্ত তথ্য সম্পর্কিত কোন মতামত জানাতে চাইলে কমেন্ট করুন এবং শেয়ার করে অন্যকে জানার সুযোগ করে দিন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন