ধর্ষণের দৃশ্যে মিশা সওদাগরের পছন্দের অভিনেত্রী যারা ছিলেন

0
508
বাংলাদেশী বেসরকারী টিভি চ্যানেল আরটিভিতে সম্প্রচারিত একটি  সেলেব্রেটি অাড্ডা ও গল্পের অনুষ্ঠান লাভেলা এবং পূর্ণিমা। যেখানে উপস্থাপিকা হিসেবে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশের সনামধন্য অভিনেত্রী পূর্ণিমা। সপ্তাহের প্রতি রবিবার নতুন ও পুরাতন প্রজন্মের জনপ্রিয় টিভি  সেলেব্রেটির মাধ্যমে সাজানো হয় অনুষ্ঠানটি এবং  সেলেব্রেটিদের সাথে অাড্ডা দেওয়ার মাধ্যমে দর্শকদের জানানো হয়  সেলেব্রেটিদের আড়ালে ঘটে যাওয়া না-জানা অনেক ঘটনা। আড্ডার মূল বিষয়টি হচ্ছে  সেলেব্রেটিগণ কীভাবে টিভি পর্দায় এলেন, তাদের জীবনের অতীত কাহীনি, বর্তমান জীবন কীভাবে কাটাচ্ছেন, ভবিষৎতে বাংলাদেশের জন্য কিছু করার পরিকল্পনা আছে কিনা ইত্যাদি জীবন সংক্রান্ত ঘটনাপ্রবাহ সম্পর্কে জানা হয়।
মিশা সওদাগরের
ধর্ষণের দৃশ্যে মিশা সওদাগরের পছন্দের অভিনেত্রী
কিন্তু সম্প্রতি এই অনুষ্ঠানটিকে ঘিরেই স্যোশাল মিডিয়াতে চলছে তুমুল আলোচনা । সমালোচনার মূল টার্গেট এ পরিণত হয়েছেন লাভেলা এবং পূর্ণিমা অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা অভিনেত্রী পূর্ণিমা। গত রবিবার এই অনুষ্ঠানের সেলেব্রেটি হিসেবে এসেছিলেন বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় খলনায়ক মিশা সওদাগর । তার চলমান জীবন কাহীনি নিয়েই প্রতিবারের মত এবারও উপস্থাপিকে হিসেবে পূর্ণিমা অনুষ্ঠান পরিচালনা করেছিলেন। অনুষ্ঠানের প্রথম ধাপে দেখা যায় পূর্ণিমা অনুষ্টান শুরু করার জন্য বরাবরের মত আকর্ষণীয় উপস্থাপনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করেন। তারপর অনুষ্ঠানের মঞ্চের পাশের দরজা দিয়ে প্রবেশ করেন মিশা সওদাগর এবং তাকে স্বাগতম জানাই পূর্ণিমা। এরপর মিশা সওদাগর ফুলের মাধ্যমে পূর্ণিমার অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা জানাই।
অনুষ্ঠানে মিশা সওদাগর সম্পর্কে অনেক অজানা কথাগুলো উপস্থাপিক পূর্ণিমা দর্শকদের জানানোর জন্য প্রশ্ন করতে থাকে। মিশা সওদাগরও তার সাথে ঘটে যাওয়া নিজের জীবন ও টিভি সিনেমার জীবনের ঘটনা প্রবাহ সম্পর্কে উত্তর দিতে থাকেন। অনুষ্টানের মাঝামাঝি সময়ে কৌতুহলী উপস্থাপিক পূর্ণিমা মিশা সওদাগরকে প্রশ্ন করেন “কার সাথে ধর্ষণ দৃশ্যে অভিনয় করতে বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন” এই প্রশ্নেই ঘটে বিপত্তি কিন্তু উপস্থাপিকা বুঝতে পারে নাই দর্শক মনে এই প্রশ্নটি হবে তার সমালোচনার মূল বিষয়। মিশা সওদাগর পূর্ণিমার প্রশ্নে বিব্রত না হয়ে তিনি উত্তরে জানান, মৌমুসী ও পূণিমার সংঙ্গে। এই উত্তর শুনে উপস্থাপিক পূর্ণিমা হা হা হা করে হেসে ওঠেন। অনুষ্ঠানের এই প্রশ্নটিকে ঘিরেই দর্শকদের মধ্যে চলছে উপস্থাপিকা পূর্ণিমাকে নিয়ে সমালোচনার ঝোড়।
পূর্ণিমা এ প্রসঙ্গে বলছেন, প্রশ্নের পীঠে এমন প্রশ্নটি মূলত মজা করেই করা হয়েছে। কিন্তু ফেসবুকবাসী তো এটি মানতে নারাজ। তারা সমালোচনায় নেমেছেন আমাকে নিয়ে। ওই অনুষ্ঠানের মিশা সওদাগরের নানা অজানা বিষয়ও উঠে এসেছে। খলনায়ক হওয়ার পর কী কী সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন সেটিও জানিয়েছেন তিনি। কোন তারকার সঙ্গে তার ভালো বন্ধুত্ব এবং চলচ্চিত্রের আজকের দিনে চিত্রনায়ক মান্না জীবিত থাকলে চলচ্চিত্র এমন অবস্থানে দাঁড়াত না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।
আমাদের সাথে যুক্ত হতে চাইলৈ : ফেসবুক পেইজ | | ফেসবুক গ্রুপ
উপরোক্ত তথ্য সম্পর্কিত কোন মতামত জানাতে চাইলে কমেন্ট করুন এবং শেয়ার করে অন্যকে জানার সুযোগ করে দিন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন