ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এইচএসসি শিক্ষাবৃত্তি ২০১৯

0
62

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক তার শিক্ষাবৃত্তি কর্মসূচির আওতায় দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উচ্চ মাধ্যমিক,স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়নরত মেধারী ও আর্থিকভাবে অসচ্ছল ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বৃত্তি প্রদান করে আসছে। এই ধারাবাহিকতায় ২০১৯ সালে এইচ.এস.সি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ মেধাবী শিক্ষার্থী,শিক্ষা ক্ষেত্রে আর্থিক সহায়তা প্রত্যাশী নিম্নবর্ণিত যোগ্যতা সম্পন্ন ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে থেকে অনলাইনে বৃত্তির জন্য দরখাস্ত আহবান করা যাচ্ছে।

২০১৯ সালের এইচ.এস.সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ডাচ্ বাংলা ব্যাংক শিক্ষাবৃত্তি

ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এইচএসসি শিক্ষাবৃত্তি ২০১৯
ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এইচএসসি শিক্ষাবৃত্তি ২০১৯

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক শিক্ষাবৃত্তির আবেদনের যোগ্যতা

এইচ.এস.সি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত ন্যূনতম সিজিপিএ(চতুর্থ বিষয় ব্যতীত) সকল গ্রুপে জন্য

শিক্ষাস্তরসিটি কর্পোরেশন এলাকার অন্তর্গত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে এসএসসি/সমমান পরীক্ষায়
উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য
সিটি কর্পোরেশন এলাকারবাহিরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকেএসএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য
এইচ.এস.সি অথবা সমমান৪.৮৪.৩

ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের বৃত্তির পরিমাণ ও সময়কাল

শিক্ষার স্তরস্নাতক
সময়কাল ৩-৫ বছর (নবায়নযোগ্য)
মাসিক বৃত্তি (টাকা)২,৫০০/-
বার্ষিক অনুদান (টাকা)পাঠ্য উপকরণের জন্য-৫,০০০/-
পোষাক পরিচ্ছদের জন্য-১,০০০/-

ডাচ-বাংলা ব্যাংকের স্নাতক পর্যায়ের বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা তাদের চূড়ান্ত পরীক্ষার সন্তোষজনক ফলাফলের (সিজিপিএ ৪.০ এর মধ্যে ন্যূনতম ২.২৫) ভিত্তিতে স্নাতকোত্তর (মাষ্টার্স/এম.ফিল/পিএইচডি.) পর্যায়েও পড়াশুনার জন্য শিক্ষাবৃত্তি পাবেন।

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক শিক্ষাবৃত্তির আবেদনের নীতিমালা

১। যে সব ছাত্র-ছাত্রী সরকারী বৃত্তি ব্যতীত অন্য কোন উৎস থেকে বৃত্তি পাচ্ছেন,তারা ডাচ্ বাংলা ব্যাংক এর শিক্ষাবৃত্তির জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন না।
২। গ্রামীণ/অনগ্রসর এলাকায় অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে উর্ত্তীণ ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বৃত্তির শতকরা ৯০ ভাগ নির্ধারিত থাকবে এবং মোট বৃত্তির শতকরা ৫০ ভাগ ছাত্রীদের প্রদান করা হবে।
৩। ২০১৯ সালের এইচ.এস.সি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ,আগ্রহী ও উপরোক্ত যোগ্যতা সম্পন্ন ছাত্র-ছাত্রীদেরকে অনলাইনে app.dutchbanglabank.com/DBBLScholarship এই ঠিকানায় নিম্নোক্ত সংযুক্তিসহ আবেদন করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।
৪। আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবির স্ক্যান কপি।
৫। আবেদনকারীর পিতা ও মাতার পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবির স্ক্যান কপি।
৬। এস.এস.সি/সমমান পরীক্ষার নম্বরপত্র ও প্রশংসাপত্রের স্ক্যান কপি।
৭। এইচ.এস.সি/সমমান পরীক্ষার নম্বরপত্রের স্ক্যান কপি।
৮।সরাসরি/ডাকযোগে/কুরিয়ারযোগে কোন আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক শিক্ষাবৃত্তির আবেদনের গুরুত্বপূর্ণ্য কিছু তথ্য

আবেদন শুরুর তারিখ : ২১ জুলাই ২০১৯ইং
আবেদন শেষ তারিখ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ইং
ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ইং
প্রাথমিকভাবে বাছাইকৃত প্রার্থিদেরকে ডিবিবিএল এর উপরোক্ত ওয়েবসাইট থেকে “প্রাইমারি সিলেক্শন লেটার” এবং প্রদত্ত নির্দেশিকার প্রিন্ট কপিসহ সকল কাগজপত্রের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের যেকোন শাখা/মোবাইল ব্যাংকিং অফিসে উপস্থিত হওয়ার তারিখ : ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ অক্টোবর ২০১৯ইং পর্যন্ত।
চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের তারিখ : পরবর্তীতে পত্রিকা এবং ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানানো হবে।

আমাদের সাথে যুক্ত হতে চাইলৈ : ফেসবুক পেইজ | | ফেসবুক গ্রুপ

উপরোক্ত তথ্য সম্পর্কিত কোন মতামত জানাতে চাইলে কমেন্ট করুন এবং শেয়ার করে অন্যকে জানার সুযোগ করে দিন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার কমেন্ট লিখুন
আপনার নাম লিখুন